আমাদের ফেসবুক মার্কেটিং সার্ভিস

Facebook-Marketing-Service

সার্ভিস চার্জঃ

প্রথমেই আসি সার্ভিস চার্জে, কারণ আমাদের চার্জ অন্য অনেক কোম্পানি বা এজেন্সির তুলনায় বেশি। আমরা প্রতি ডলার সাধারণত ১৩৫ টাকা করে চার্জ করি (জুন-২০২০)। তবে আপনার পেইজ কোয়ালিটি, ব্যবসায়ের ধরণ, বাজেট, আপনার পোস্টের কোয়ালিটি, এবং আপনার Understanding এর উপর ভিত্তি করে তা ১২৫ টাকা পর্যন্ত হতে পারে।

কেন আমাদের চার্জ বেশি?

আমরা শুধুমাত্র ইন্টারন্যাশনাল ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করে ফেসবুক ক্যাম্পেইন করি। সেক্ষেত্রে সবার জন্য খরচ প্রতি ডলারে প্রায় ১০০ টাকা। এটা আপনি নিজে করলেও একই পড়বে। হিসাব টা দেখে নিন- ডলার রেট ৮৫ থেকে ৮৬ টাকা (জুন-২০২০), এর সাথে ১৫% ভ্যাট। এখানেই প্রাইয় ৯৯ টাকার হিসাব চলে আসে।

আমরা যেহেতু ব্যবসায়িক উদ্দেশ্যে বিজ্ঞাপনের কাজ করছি সেখানে আমাদের ব্যবসায় পরিচালনার খরচ এবং লাভের জন্য একটা চার্জ যুক্ত হবেই। এটাই স্বাভাবিক।

কেমন রেসপন্স পাবেন? কত লাইক পাবেন?

আমরা অত্যন্ত দুঃখিত যে এই ব্যাপারে আমরা কোন নিশ্চয়তা দিতে পারি না। এটা তখনই সম্ভব যদি মার্কেটারের মূল লক্ষ্য উদ্দেশ্য হয় শুধুমাত্র একটা সংখ্যা। আমরা আপনার পেইজের অবস্থা, আপনার প্রোডাক্ট, তার দাম এইগুলা বিবেচনা করে আপনার জন্য টার্গেট অডিয়েন্স সেট করে এ্যাড রেডি করি। এক্ষেত্রে আমাদের নির্ভর করতে হয় ফেসবুকের মেশিন লার্নিং সিস্টেম এবং তাদের এ্যালগরিদমের উপর যা প্রতিদিন বিভিন্ন কারণে বিভিন্ন আঙ্গিকে কয়েক হাজার বার পরিবর্তিত হতে পারে। তাই আমরা সেটা নিশ্চিত করতে পারি না, তবে আমরা আমাদের সর্বোচ্চ আন্তরিকতার সাথে কাজ করি, যেন আপনি ভালো ফিডব্যাক পান এবং আবার আমাদের সার্ভিস গ্রহণ করেন।

পেইজ প্রমোট বা বুস্ট করলে সেল হবে?

মার্কেটিং আর সেলস। এই দুইটা একে অপরের পরিপূরক। তবে এদের মধ্যে ব্যবধান অনেক। ফেসবুক প্রমোশনে আপনি শুধু মার্কেটিং করছেন। সেলস কিন্তু শুধু মার্কেটিং ছাড়াও আরো অনেক কিছুর উপর নির্ভর করে। যেমন- আপনার প্রোডাক্ট কতোটা আকর্ষণীয়, তার দাম কেমন, অন্য পেইজে তা কেমন দামে সেল হয়, আপনার পেইজের কোয়ালিটি, আপনার নিজের ফেইস ভ্যালু, আপনার বা আপনার ব্যবসায়ের উপর মানুষের আস্থা, আপনার পেইজের অন্যান্য পোস্ট, আপনার কাস্টোমার ডিল করার দক্ষতা (মানে আপনার সেলস স্কিল), ইত্যাদি অনেক কিছুর উপর নির্ভর করে। আপনি এই ব্যাপারে আমাদের বিজনেস কাউন্সেলিং সার্ভিসে আরো বিস্তারিত জানতে পারবেন।

আমি সব কিছুই বুঝেছি। আমি আপনাদের সার্ভিস নিতে চাই।

প্রথমে নিজের পেইজের উপস্থাপনার দিকে একটু লক্ষ্য করুন। আপনার পেইজের লোগো, কাভার, পেইজের About, Description, যোগাযোগের মাধ্যম ইত্যাদি ঠিক আছে কি’না। আপনি যখনই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন টাকা খরচ করে ফেসবুকে মার্কেটিং করবেন তখনই আপনার উল্লেখিত ব্যাপারগুলো প্রফেশনাল হওয়া অত্যন্ত জরুরী। আমাদের স্টার্ট-আপ সলিউশনে এই বেসিক বিষয়গুলো নিয়ে সাপোর্ট সার্ভিস দেয়া হয়। যেখানে নতুন উদ্যোক্তা হিসেবে আপনি অনেক কম খরচে প্রফেশনাল লোগো ও কাভার পিকচার করিয়ে নিতে পারবেন।

কেন লোগো বা কাভার প্রফেশনাল হতে হয়?

এটা অডিয়েন্সের কাছে আপনার পেইজের ফার্স্ট ইমপ্রেশন। এ দেখেই অডিয়েন্স জাজ করবে আপনার পণ্যের কোয়ালিটি কি, আপনার সার্ভিস কেমন হতে পারে, এবং আপনি কতোটা প্রফেশনাল। তাছাড়া এই খরচটা ফিক্সড। একবার করলেই হবে। যা আপনার প্রতিবার প্রমোট বা বুস্টকে Indirectly সাপোর্ট করবে।

আপনার বিগত মার্কেটিং এর অভিজ্ঞতা আমাদের জানান।

এখনো যদি আপনি মনে করেন আমাদের দিয়েই আপনার ফেসবুক পেইজের প্রমোশন বা পোস্ট বুস্ট করাবেন দয়া করে আমাদের নিচের বিষয়গুলো জানানঃ

১। আপনার সর্বশেষ এ্যাডের রিচ কি ভালো ছিলো নাকি কমে গিয়েছিলো বা বন্ধ হয়ে গিয়েছিলো?

২। গত ৬ মাসের মধ্যে কি কুপন/ পে-পাল ব্যবহার করে কোন এ্যাড রান করেছিলেন?

৩। গত ৬ মাসের মধ্যে কি কোন এজেন্সী কে দিয়ে ১১০ টাকা প্রতি ডলারের নিচে খরচ দিয়ে কোন এ্যাড রান করিয়েছলেন?

Source: Email Communication form Facebook

চলুন তাহলে শুরু করা যাক!

প্রথমেই আপনাকে সুন্দর ছবি দিয়ে একটা পোস্ট রেডি করতে হবে। ছবির সাইজ ন্যূনতম ১০৮০ x ১০৮০ বা ১২০০ x ৬২৮ রেজুলেশনের হতে হবে। ছবি রিয়েল হলে ভালো হয়, ক্যাটালগের ছবি দিতে চাইলে সফট কপি যোগাড় করে নিন। গুগল করে বা অন্য পেইজ থেকে ছবি নিবেন না। পোস্টের জন্য ২৫ অক্ষরের মধ্যে একটা টাইটেল, ৯০ অক্ষরের মধ্যে একটা ক্যাপশন দিতে হবে। ক্যাপশন সর্বোচ্চ ২৫০ অক্ষর পর্যন্ত হতে পারে।

এবার আমাদের সাথে শুরু করা যেতে পারে। এতো বড় লেখাটা আসলে আপনার নিজের জন্য। ধন্যবাদ সময় নিয়ে পড়ার জন্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.